আলিয়া মাদ্রাসা অজানা ইতিহাস ((পর্ব - ১)


ইসলামী চেতনা-বিনাশী ইংরেজ অপশক্তি কি প্রকৃতার্থেই মুসলিমদের কল্যাণকামী হতে পারে ? মহান আল্লাহর বাণী চিরসত্য:
“ইহুদী-খৃস্টান জাতি কখনও তোমার প্রতি সন্তুষ্ট হবে না যতক্ষণ না তুমি তাদের মতবাদের অনুসারী হও।”
(সূরা বাকারা:১২০)
আলিয়া মাদ্রাসার লেকচারার মাওলানা আব্দুস সাত্তার রচিত এবং মোস্তফা হারুন অনূদিত ‘আলিয়া মাদ্রাসার ইতিহাস’ নামক গ্রন্থের দ্বিতীয় সংস্করণের ৩৯নং পৃষ্ঠায় এ প্রসঙ্গে লর্ড ওয়ারেন হেস্টিংসের বক্তব্য উদ্ধৃত হয়েছে। তিনি বলেন:
“মুসলমানদের রাজত্বের পতনের পর তাদের পারিবারিক কাঠামো রীতিমত ভেঙ্গে পড়েছে। বর্তমানে আর্থিক সঙ্গতি নেই বলে তাদের সন্তান-সন্ততিদেরকে উপযুক্ত শিক্ষা দিয়ে উচ্চতর সরকারী পদে বহাল করতে পারে না। তাদের এই অবনতি দূর করার জন্য গভর্নর বাহাদুর আলিয়া মাদ্রাসার পত্তন করেন।”
উক্ত গ্রন্থেরই ভূমিকা লেখেছেন মুহাম্মদ ইয়াকুব শরীফ; প্রাক্তন অধ্যক্ষ আলিয়া মাদ্রাসা, ঢাকা। তিনি তাঁর ভূমিকায় লেখেছেন:
“মুসলমানরা ছিল বীরের জাতি। ইংরেজ বেনিয়ারা ছলে-বলে-কৌশলে তাদের কাছ থেকে ক্ষমতা কেড়ে নিয়ে তাদের প্রচলিত ধর্ম, শিক্ষা ও মর্যাদা হরণ করার জন্য পদে পদে যেসব ষড়যন্ত্র আরোপ করেছিল আলিয়া মাদ্রাসা তারই একটি ফসল। বাহ্যত এই প্রতিষ্ঠানের পত্তন হয়েছিল আলাদা জাতি হিসেবে মুসলমানদের স্বার্থ সংরক্ষণের নিমিত্তে, যাতে মুসলমানদের ধর্ম, কৃষ্টি, আদর্শ রক্ষা পায়। কিন্তু বাস্তবক্ষেত্রে মুসলমানদের ধোঁকা দেওয়াই ছিল তাদের আসল উদ্দেশ্য।”
ফেনী আলিয়া মাদ্রাসার সাবেক অধ্যক্ষ মিশকাত শরীফের বিখ্যাত বাংলা অনুবাদক মাওলানা নুর মুহাম্মদ আজমী রহ. তদীয় ‘হাদিসের তত্ত্ব ও ইতিহাস’ গ্রন্থের ২৯২-২৯৩ পৃষ্ঠায় লেখেন-
“---প্রথম স্থাপনকালে এর উদ্দেশ্য ছিল তৎকালে বৃটিশ ভারতের শাসনকার্য পরিচালনার জন্য একদল আমলা তৈরি করা। ১৮৩৫ইং থেকে ইংরেজিকে শিক্ষার মাধ্যম অতপর আদালতের ভাষা করার পর ইহা উদ্দেশ্যহীনভাবে কেবল একটি ঐতিহাসিক প্রতিষ্ঠান হিসেবেই চালু থাকে। ...১৮৫০ইং সালে এর জন্য প্রিন্সিপালের পদ সৃষ্টি করা হয়। প্রসিদ্ধ প্রচ্য ভাষাবিদ ডঃ স্প্রেঙ্গারকে ইহার প্রথম প্রিন্সিপাল নিযুক্ত করা হয়। ২৬ জন ইংরেজ প্রিন্সিপালের পর একজন মুসলমানগণকে প্রিন্সিপাল পদে আনা হয়।”
►►► বিভিন্ন সময়ে নিয়োজিত আলিয়া মাদ্রাসার প্রিন্সিপালবৃন্দঃ
নামঃ - কার্যকালঃ
(১) এ স্প্রেঙ্গার এম,এ - ১৮৫০ ইং
(২) স্যার উইলিয়াম নাসনলীজ এল,এল,ডি - ১৮৭০ ইং
(৩) জে স্যাটক্লিফ এম,এ - ১৮৭০ ইং
(৪) এইচ, এফ, ব্রকম্যান এম, এ - ১৮৭৩ ইং
(৫) এ,ই, গাফ এম, এ - ১৮৭৮ ইং
(৬) এ, এফ, আর হোর্নেল সি,আই,ই,পি,এইচ,ডি - ১৮৮১ ইং
(৭) এইচ প্রথেরো এম, এ - ১৮৯০ ইং
(৮) এ, এফ, হোর্নেল - ১৮৯০ ইং
(৯) এ, জে, রো,এম, এ - ১৮৯২ ইং
(১০) এ, এফ হোর্নেল - ১৮৯২ ইং
(১১) এ, জে, রো - ১৮৯৫ ইং
(১২) এ, এফ, হোর্নেল - ১৮৯৭ ইং
(১৩) এফ, জে, রো - ১৮৯৮ ইং
(১৪) এফ, সি, হল - ১৮৯৯ ইং
(১৫) স্যার অর‌্যাল স্টেইন - ১৮৯৯ ইং
(১৬) এইচ, এ,স্টার্ক - ১৯০০ ইং
(১৭) কর্ণেল রেস্কিং - ১৯০০ ইং
(১৮) এইচ, এ,স্টার্ক - ১৯০১ ইং
(১৯) এড, ওয়ার্ড ভেনিসন - ১৯০৩ ইং
(২০) এইচ, ই, স্টেপেল্টন - ১৯০৩ ইং
(২১) ডেনিসন রাস - ১৯০৪ ইং
(২২) মিঃ চীফম্যান - ১৯০৭ ইং
(২৩) এড,ওয়ার্ড, ডেনিসন - ১৯০৮ ইং
(২৪) এ, এইচ হারলি - ১৯১১ ইং
(২৫) জে, এম বুটামলি - ১৯২৩ ইং
(২৬) এ, এইচ হারলি - ১৯২৫ ইং


শেয়ার করুন

লেখকঃ

পূর্ববর্তী পোষ্ট
পরবর্তী পোষ্ট